আজ ২১শে ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৯ই ফাল্গুন ১৪২৪, ৬ই জমাদিউস-সানি ১৪৩৯

United we stand, divided we fall

ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৮

বেগম খালেদা জিয়ার বয়স ৭৩ বছর। তিনি অসুস্থ। বেগম খালেদা জিয়া একজন মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী এবং বাংলাদেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী। সব চাইতে বড় কথা হলো  ভুয়া মামলাতে ফাঁসিয়ে সাজা দেওয়া হয়েছে সাজিয়ে।  আমি কখনো বিএনপির রাজনীতি সমর্থন করিনা। শুধু বিএনপি কেনো আমি মনে করি বর্তমানে বাংলাদেশে যেসব রাজনৈতিক দল রয়েছে তার কোনটিই জনগনের প্রতিনিধি নয়।

আওয়ামী মুসলিম লীগ পরে যেটা আওয়ামীলীগ হয় তার জন্ম হয়েছিল আমার জন্মের অনেক আগে কিন্তু বিএনপির যখন জন্ম হয় আমার জন্মের অনেক পরে। তবে আমি বিএনপির আতুর ঘরের আশেপাশেই ছিলাম। আমি কখনো বিএনপিতে যোগ দেইনি। কারণ একটাই সেটা হলো জন্ম লগ্ন থেকেই বিএনপি বাংলাদেশের এলিটদের প্রতিনিধিত্ব করে এসেছে।

বাংলাদেশে এলিট কারা?
পূর্ব পাকিস্তানে যারা এলিট ছিল তাদের চাকর, ড্রাইভার, খানসামা, মালি, পিয়ন, দর্জী, মোড়ের মুদি দোকানী, বাজারের মুটে ইত্যাদিরা  কেউ কেউ এখন বৃদ্ধ কিন্তু এলিট। তাদের ছেলেমেয়েরা এখন এলিট। ১৯৭১ এর লুটেরা ১৯৭২ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত লুটপাট শেষ করে যার যার ব্যবসা বাণিজ্য জমিজমা দালানকোঠা ইত্যাদি করে ফেলেছিল। শেখ মুজিবের মৃত্যুর পরে তারা তাদের স্বর্গ থেকে বিদায় নিতে চায়নি তাই রাতারাতি চোর ডাকাতের এক বিশাল দল মুজিব কোট খুলে জিয়ার সাথে কোদাল হাতে ত্রিপিস স্যুট পরিধান করে বিএনপিতে যোগ দেয়।  সেজন্য দেখা যায় আওয়ামীলীগ ও বিএনপির সম্পর্ক বিয়াই বিয়াইনের।

আজকে বেগম খালেদা জিয়া যখন কারাগারে তখন সেইসব বৃদ্ধ প্রাক্তন লুটেরা ও বর্তমান বৃদ্ধ এলিটেরা প্রচুর সম্পদ জড়ো করে দেশের অভিজাত এলাকাতে বা  বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অবস্থান করছেন  । ছেলেমেয়ে নাতিপুতি নিয়ে সবাই ভালই আছেন। কিন্তু খালেদা জিয়া এখন ভুয়া মামলাতে ফেঁসে জেলে আছেন।

বিএনপির সদস্যেরা যারা মিছিলের সামনে থাকে, যারা ১৮-৪৮টা বুলেট বুকে নিয়ে মর্গে বা নদীনালাতে পচে তাদের খবর বিএনপির এলিট সদস্যরা রাখেনা। যারা গ্রেফতার হয়ে জেলে আছেন তাদের খবরও বিএনপির তথাকথিত এলিট সদস্যরা রাখেন না।  বিএনপির সদস্যদের মধ্য ঐক্যের অভাব আওয়ামীলীগের জন্য আশীর্বাদ।

শেখ হাসিনার সব চাইতে ভাল দিক যা সেটা হলো  – জাতীর চরিত্র একটি ঢাকনা খোলা বাসনে রেখে তাতে মাছি ভন ভন করিয়ে সবাইকে দেখানো ।

মুজিবের আমলের লুটেরা এলিট হলো
সেই এলিটেরা জিয়ার আমলে এলিট লাইসেন্স পেলো
হাসিনার আমলে ওদের কেউ কেউ পুনঃরায় আওয়ামীলীগে যোগ দিলো
কেউ কেউ খালেদার পেছনে থেকেই টাকার পাহাড় রচনা করলো
আওয়ামীলীগ বিএনপি বিয়াই বিয়াইন – আজ যখন খালেদা জিয়া জেলে তখন সেই বেয়াই বেয়াইনেরা কোথায় ? এই তো সেদিন খালেদা জিয়া সিলেট গেলেন – সেখানে লোকে লোকারন্য
খালেদা জিয়া কোর্টে গেলেন – সড়কে লোকে লোকারণ্য
খালেদা জিয়া জেলে গেলেন তো সড়ক ফাঁকা ?????????

এই কি মায়ের জন্য সন্তানদের ভালবাসা?
মায়ের জন্য প্রান দিতে সন্তানেরা কি কুন্ঠাবোধ করে? মায়ের জন্য সন্তানের ভালবাসার চাইতে কি জেলের দেওয়াল শক্তিশালী? বাংলাদেশে বেগম খালেদা জিয়ার যত সন্তান আছে তত বুলেট হাসিনার কাছে নেই।
দরকার একতার । ঐক্যবদ্ধভাবে সবাই মিলে ঝাপিয়ে পড়ো, জেলের তালা ভাঙ্গো আর মাকে মুক্ত করে আনো ।

কৈশরে আমি যখন রাজনীতি করতাম তখন বিশ্বাস করতাম বন্দুকের নলই সকল রাজনৈতিক ক্ষমতার উৎস । এখনো আমি তা বিশ্বাস করি। আমি কি বিশ্বাস করি বা না করি তাতে কিছু আসে যায়না?

আমি  ভুল। আজ এই মুহুর্তে আমি বিশ্বাস করতে চাই জনগনই সকল রাজনৈতিক ক্ষমতার উৎস। আজ এই মুহুর্তে আমি চাই সাড়া বাংলাদেশ ঐক্যবদ্ধ হবে এবং বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনবে। এটাই হবে বাংলাদেশীদের টার্নিং পয়েন্ট । এখান থেকেই সুরু হোক স্বাধীনতা যুদ্ধ। সুরু হোক ভারতের আগ্রাসন ও দালালমুক্ত বাংলাদেশের জন্য সংগ্রাম। ন্যায় বিচার ও আইনের শাসন প্রতিষ্টার জন্য সংগ্রাম। বাংলাদেশীদের জন্য বাংলাদেশ। স্বাধীন বাংলাদেশ।

আয়শা মেহের
সম্পাদিকা
প্রবাসনিউজ ২৪
টরেন্টো, কানাডা ।

সংবাদটি পড়া হয়েছে ৯৬ বার

( বি: দ্র: প্রবাস নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত প্রবাস নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ

x
সর্বশেষ